পুলিশকে থাপ্পর মেরে আটক যুবলীগ নেত্রী

প্রকাশিত: ৬:২৮ অপরাহ্ণ, মার্চ ১৫, ২০২০
আটককৃত যুবলীগ নেত্রী

গাজীপুর প্রতিনিধি: দুই পুলিশ কনস্টেবলকে থাপ্পড় মেরে আটক হয়েছেন গাজীপুর সিটি করপোরেশনের সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর রুহুন নেছা রুনু (৪০)। তিনি সংরক্ষিত (৩১, ৩২, ৩৩) ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও মহানগীর যুব মহিলা লীগের সভাপতি। ট্রাফিক আইন অমান্যকে কেন্দ্র করে আজ শনিবার দুপুরে এ ঘটনা ঘটেছে নগরীর চান্দনা চৌরাস্তায়।

গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের (জিএমপি) ট্রাফিক (উত্তর) বিভাগের সহকারী পুলিশ কমিশনার মাজহারুল ইসলাম জানান, কাউন্সিলর রুহুন নেছা রুনু দুপুর দেড়টার দিকে ট্রাফিক নির্দেশনা না মেনে গাড়ি চালাচ্ছিলেন। কর্তব্যরত দুই ট্রাফিক পুলিশ বাধা দিলে তিনি গাড়ি থেকে নেমে অশ্লীল গালাগাল শুরু করেন। একপর্যায়ে ‘দুই টাকার পুলিশ আমরা তোদের পালি, বেতন দেই। আমকে চিনিস, আমি কি করতে পারি ধারণা নেই তোর’ বলেই ওই পুলিশ সদস্যকে থাপ্পড় মারেন। এতে হতবিহ্বল হয়ে পড়েন ওই পুলিশ কনস্টেবল। তাকে রক্ষা করতে আরেক কনস্টেবল এগিয়ে গেলে, তাকেও থাপ্পড় মারেন রুনু। পরে গাড়িসহ ওই নেত্রীকে চান্দনা পুলিশ বক্সে নেওয়া হয়। বেলা ২টার দিকে তাকে বাসন থানায় সোপর্দ করা হয়।

জানা গেছে, বিআরটি প্রকল্পের কাজের জন্য গত কয়েকদিন ধরে চান্দনা চৌরাস্তার গাড়গুলো জাগ্রত চৌরাঙ্গী হয়ে যেতে না দিয়ে, নগপাড়া হয়ে যাওয়ার নির্দেশনা দিয়েছে ট্রাফিক পুলিশ। এ জন্য রশি টাঙিয়ে রাস্তা বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। কাউন্সিলর রুনু নিজের ব্যক্তিগত গাড়িতে করে ভোগড়া এলাকায় একটি সামাজিক অনুষ্ঠানে যাচ্ছিলেন। তার গাড়িটি রশি ভেদ করে চান্দনা চৌরাস্তার জাগ্রত চৌরাঙ্গী হয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে ওই ঘটনা ঘটে।

বাসন থানার ওসি কাউসার আহম্মেদ জানান, দায়িত্ব পালনের সময় পোশাক পরা অবস্থায় ওই দুই পুলিশ সদস্যকে থাপ্পড় পারেন যুব মহিলা লীগ নেত্রী কাউন্সিলর রুহুন নেছা। এ ঘটনায় এক সদস্যের পোশাকের বোতাম ছিঁড়ে গেছে। এ ঘটনায় আহত ট্রাফিক পুলিশ সদস্য আশিকুর রহমান বাদী হয়ে ওই নেত্রীর বিরুদ্ধে মামলা করেন