করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃতদের দাফন নিয়ে জটিলতা

প্রকাশিত: ৮:৪৫ অপরাহ্ণ, মার্চ ২৫, ২০২০

স্টাফ রিপোর্টার: খিলগাঁও তালতলা কবরস্থানে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ব্যক্তিদের কবর না দেয়ার ব্যাপারে নোটিশ টাঙিয়ে দিয়েছে এলাকাবাসী
বাংলাদেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে কেউ মারা গেলে তার মৃতদেহ ঢাকার খিলগাঁও তালতলার একটি কবরস্থানে দাফন করা হবে বলে রাজধানীর দুটো সিটি কর্পোরেশন সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

কিন্তু খিলগাঁও এলাকার বাসিন্দাদের প্রতিবাদের মুখে সেই সিদ্ধান্ত থমকে গেছে। ফলে করোনাভাইরাসে মারা যাওয়া ব্যক্তিদের দাফন নিয়ে জটিলতা তৈরি হয়েছে।

তাদের প্রতিবাদের মুখে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত একজনের মৃতদেহ ওই কবরস্থানের নিয়ে গিয়েও দাফন করা যায়নি। পরে পুলিশের মধ্যস্থতায় তাকে অন্য আরেকটি কবরস্থানে দাফন করা হয়।

খিলগাঁওয়ের একজন বাসিন্দা ইশতিয়াক বাবলা বিবিসিকে বলছেন, “গত সোমবার রাতে দেখি এলাকার অনেক মানুষ মিছিল করে কবরস্থানে যাচ্ছে। জানতে পারলাম, করোনাভাইরাসে মারা যাওয়া কাউকে এই কবরস্থানে কবর দেয়ার বিরুদ্ধে তারা প্রতিবাদ করছেন।”

”কবরস্থানে কাউকে মাটি দিতে দেয়া হবে না, এটাই আমার কাছে আশ্চর্য লাগে। যে কেউই তো আক্রান্ত হতে পারেন। তাহলে কোথায় কাকে মাটি দেয়া হবে? এটা সম্পূর্ণ হুজুগের একটা ব্যাপার। কিন্তু এটা নিয়ে কথা বলার মতো পরিবেশ এখানে নেই।”

তিনি বলেন, ”স্থানীয় মানুষজনের আশঙ্কা, যেহেতু এই কবরস্থানের ভেতর দিয়ে তারা হাঁটাচলা করেন, এখানে করোনাভাইরাসে মারা যাওয়া কাউকে কবর দেয়া হলে, তাদের মধ্যে ভাইরাসটি ছড়িয়ে পড়তে পারে।”

তিনি জানান, কবরস্থানের সামনে একটি ব্যানারও টাঙিয়ে দেয়া হয়েছে যে, করোনাভাইরাসে মারা যাওয়া কাউকে এই কবরস্থানে কবর দেয়া যাবে না। তাকে যেন অন্যখানে কবর দেয়া হয়।

ব্যানারটিতে লেখা রয়েছে, ”সাধারণ জনগণের নিরাপত্তার স্বার্থে ‘করোনা ভাইরাসে’ আক্রান্ত মৃত ব্যক্তিদের লাশ খিলগাঁও তালতলা কবরস্থানের পরিবর্তে ঢাকার বাইরে বা অন্য স্থানে নিরাপদ স্থানে দাফন করার ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য বিশেষভাবে অনুরোধ করছি।”