লালমনিরহাট

১৭, লালমনিরহাট-০২ (কালীগঞ্জ, আদিতমারী) আসনের সংসদ সদস্য নুরুজ্জামান আহমেদ

প্রকাশিত: ৩:৫০ অপরাহ্ণ, মে ১, ২০২০
নুরুজ্জামান আহমেদ

মোঃ মাসুদ রানা রাশেদ, লালমনিরহাট: নুরুজ্জামান আহমেদ (৩ জানুয়ারি, ১৯৫০) একজন বাংলাদেশী রাজনীতিবিদ এবং গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সসরকারের সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বপ্রাপ্ত মন্ত্রী। তিনি ২০১৪ ও ২০১৮ সালের যথাক্রমে দশম ও একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের মনোনয়নে লালমনিরহাট-০২ (কালীগঞ্জ, আদিতমারী) আসন থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন।
নুরুজ্জামান আহমেদ সমাজকল্যাণ মন্ত্রী
দায়িত্বাধীন
অধিকৃত কার্যালয়ঃ ৭ জানুয়ারি, ২০১৯।
সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী
কাজের মেয়াদঃ ১৯ জুন, ২০১৬-৬ জানুয়ারি, ২০১৯।
পূর্বসূরীঃ সৈয়দ মহসিন আলী।
উত্তরসূরীঃ রাশেদ খান মেনন।
খাদ্য প্রতিমন্ত্রী
কাজের মেয়াদঃ ১৪ জুলাই, ২০১৫-১৯ জুন, ২০১৬।
উত্তরসূরীঃ কামরুল ইসলাম।
লালমনিরহাট-০২ আসনের সংসদ সদস্য ব্যক্তিগত বিবরণঃ জন্ম ৩ জানুয়ারি, ১৯৫০। (বয়স-৭০),
লালমনিরহাট, বাংলাদেশ।
জাতীয়তাঃ বাংলাদেশ।
রাজনৈতিক দলঃ বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ।
পিতাঃ করিম উদ্দিন আহমেদ।
শিক্ষাঃ স্নাতক।
পেশাঃ রাজনীতিবিদ।
মন্ত্রীসভাঃ শেখ হাসিনার তৃতীয় মন্ত্রিসভা।
শেখ হাসিনার চতুর্থ মন্ত্রিসভা।
ধর্মঃ ইসলাম।
প্রারম্ভিক জীবনঃ নুরুজ্জামান আহমেদ ১৯৫০ সালের ৩ জানুয়ারি লালমনিরহাট জেলার কালীগঞ্জ উপজেলার কাশিরাম গ্রামে জন্ম গ্রহণ করেন। তাঁর পিতার নাম করিম উদ্দিন আহমেদ ও মাতার নাম নূরজাহান বেগম। করিম উদ্দিন আহমেদও লালমনিরহাট-০২ আসন থেকে ১৯৭০ ও ১৯৭৩-এর নির্বাচনে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন।
নুরুজ্জামান আহমেদ স্থানীয় বিদ্যালয়ে তাঁর শিক্ষা জীবন শুরু করেন। ১৯৬৫ সালে তুষভান্ডার উচ্চ বিদ্যালয় থেকে মাধ্যমিক সম্পন্ন করেন। ১৯৬৭ সালে উচ্চ মাধ্যমিক সম্পন্ন করে কারমাইকেল কলেজে ভর্তি হন এবং ব্যবসায়ে স্নাতক সম্পন্ন করেন।
রাজনৈতিক জীবনঃ নুরুজ্জামান আহমেদ পারিবারিক ভাবেই রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত ছিলেন। ছাত্রজীবনে তিনি বাংলাদেশ ছাত্রলীগে যোগদানের মাধ্যমে সক্রিয় রাজনীতিতে প্রবেশ করেন। রাজনৈতিক জীবনের শুরুতে স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান হিসেবে ১৯৮৩ থেকে ১৯৯০ সাল পর্যন্ত দায়িত্ব পালন করেন। এরপর ১৯৯০ সালে কালীগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন এবং ২০০৯ সালে দ্বিতীয়বারের মত নির্বাচিত হন।
২০১৪ সালের দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নুরুজ্জামান আহমেদ বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী হিসেবে লালমনিরহাট-০২ (কালীগঞ্জ, আদিতমারী) আসন থেকে প্রথমবারের মত দশম জাতীয় সংসদের সদস্য নির্বাচিত হন। তিনি নৌকা প্রতীকে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় প্রথমবার সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন। ২০১৮ সালের একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে একই আসন থেকে একাদশ জাতীয় সংসদে নির্বাচিত হন।
সংসদ সদস্য হওয়ার এক বছর পর ২০১৫ সালের ১৪ জুলাই তিনি গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের খাদ্য মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করেন। ২০১৬ সালের ১৯শে জুন তাঁকে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী হিসেবে নিযুক্ত করা হয়। একই বছরের ২১শে জুন থেকে ৬ জানুয়ারি ২০১৯ পর্যন্ত এ দায়িত্ব পালন করেন। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জয়ী হওয়ার পর তিনি একই মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী হিসেবে ২০১৯ সালের ৭ জানুয়ারি থেকে দায়িত্ব পালন করছেন।
ব্যক্তিগত জীবনঃ ব্যক্তিগত জীবনে নুরুজ্জামান আহমেদ, হোসনে আরা বেগমের সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন। এই দম্পতির তিন সন্তান রয়েছে।
১৭, লালমনিরহাট-০২ (কালীগঞ্জ, আদিতমারী) সংসদীয় আসনের নির্বাচনে নুরুজ্জামান আহমেদ নৌকা প্রতীকে ১লক্ষ ৯৮হাজার ৫শত ৪২টি ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন।
লেখকঃ মোঃ মাসুদ রানা রাশেদ, সাংবাদিক ও সম্পাদক, সাপ্তাহিক আলোর মনি, লালমনিরহাট। মোবাঃ ০১৭৩৫৪৩৮৯৯৯