শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অধীনে থাকা জমিতে কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনের দাবী

প্রকাশিত: ১:১১ অপরাহ্ণ, মে ৬, ২০২০

মোঃ মাসুদ রানা রাশেদ, লালমনিরহাট: দেশের উত্তরাঞ্চলের মানুষ সম্পূর্ণ রুপে কৃষির উপর নির্ভরশীল। কৃষির উন্নয়ন ছাড়া এ অঞ্চলের মানুষের ভাগ্যের উন্নয়ন হচ্ছে না। আর এ জন্য দরকার কৃষিতে আধুনিক বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির ব্যবহার জরুরী। তাই কৃষি, প্রাণী সম্পদ ও মৎস্য উৎপাদন বৃদ্ধির জন্য দরকার আধুনিক প্রযুক্তি জ্ঞান সম্পন্ন দক্ষ জনশক্তি। এই দক্ষ জনশক্তি তৈরিতে জরুরী অত্র অঞ্চলে একটি আন্তর্জাতিক মানের কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করা। এখানে প্রতিবেশী রাষ্ট্র ভারত, নেপাল ও ভুটান থেকেও উচ্চ শিক্ষা লাভ করতে পারবে। লালমনিরহাটে এ বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করলে নতুন জায়গা অধিগ্রহণ করতে হবে না। গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অধীনে প্রায় ২২একর জমি রয়েছে। এ ছাড়া বাংলাদেশ সেনাবাহিনী লালমনিরহাটে একটি মিনি সেনানিবাস প্রতিষ্ঠা করে দীর্ঘদিন ধরে ডেইরী ফার্ম স্থাপন ও বিগত ২০১৫ইং সালে একটি ক্যান্টম্যান্ট পাবলিক স্কুল ও কলেজ প্রতিষ্ঠা করে মানসম্পন্ন শিক্ষা নিশ্চিত করেছে। তাদের ঘোষণা ও পরিকল্পনা অনুযায়ী এখানে একটি মেডিকেল কলেজ, প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় ও একটি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (এডুকেশন ভিলেজ) স্থাপন করার কথা থাকলেও যা আজও বাস্তবায়ন হচ্ছে না। এ সমস্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রতিষ্ঠিত হলে পার্শ্ববর্তী রাষ্ট্রের ছাত্র-ছাত্রীরাও উচ্চ শিক্ষা লাভ করতে আগ্রহী হবে। এ বিষয়ে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের হস্তক্ষেপ অত্যন্ত জরুরী হয়ে পড়েছে। যা হতে পারে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের শিক্ষা ও প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের একটি উজ্জ্বল দৃষ্ঠান্ত ও মাইলফলক। (আগামী পর্বে: শিল্প ও বাণিজ্য সংক্রান্ত।)
লেখক: সাংবাদিক ও সম্পাদক, সাপ্তাহিক আলোর মনি, লালমনিরহাট। মোবা: ০১৭৩৫৪৩৮৯৯৯