অবশেষে ৩৮দিন পর ৬১ট্রাক ও চালককে ফেরত নিলো ভারত

প্রকাশিত: ৮:৫৬ অপরাহ্ণ, মে ১২, ২০২০

মোঃ মাসুদ রানা রাশেদ, লালমনিরহাট: অবশেষে ১ মাস ৮ দিন পর ৬১ ট্রাক ও চালককে ফেরত নিলেন ভারতীয় কর্তৃপক্ষ।
মঙ্গলবার (১২ মে) বিকাল সাড়ে টার পর বুড়িমারী স্থলবন্দর কর্তৃপক্ষের ইয়ার্ড থেকে বুড়িমারী স্থলবন্দর জিরো পয়েন্ট হয়ে ভারতের কোচবিহার জেলার চ্যাংড়াবান্ধা স্থলবন্দরে প্রবেশ করে। এসময় ৬১ বিজিবি ব্যাটালিয়নের সদস্যরা সিএন্ডএফ এজেন্ট ব্যবসায়ী ও কাস্টকে সহযোগিতা করে।
সেই ট্রাক চালকদের নিয়ে যেন বাংলাদেশি পাটবীজ আমদানি কারক ও স্থানীয় সিএন্ডএফ এজেন্ট ব্যবসায়ীদের গলার কাটায় পরিণত হয়েছিল।
বুড়িমারী স্থলবন্দর ও বিজিবি সূত্র জানায় প্রায় ১৪ দিন বুড়িমারী স্থলবন্দরের ওপারে ভারতীয় কোচবিহার জেলার চ্যাংড়াবান্ধা স্থলবন্দর সীমান্তে আটকে থাকার পর উভয় দেশের সরকারি নির্দেশে স্বাস্থ্যবিধি মেনে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে গত ৪ এপ্রিল শনিবার বুড়িমারী স্থলবন্দর দিয়ে ভারত থেকে আমদানি করা ৬১ ট্রাক পাটবীজ বাংলাদেশে প্রবেশ করে। কিন্তু পাটবীজ গুলো খালাস করার পর থেকে চালক ও ট্রাক গুলো নিজ দেশে ফেরত যেতে পারেনি। ভারতীয় কর্তৃপক্ষের উপরের নির্দেশ না থাকার কারণে স্থানীয় প্রশাসন ট্রাক ও চালকদের নিচ্ছিলেন না। ফলে স্থানীয় সাংসদ বীরমুক্তিযোদ্ধা মোতাহার হোসেন, জেলা প্রশাসক আবু জাফর, পুলিশ সুপার, আবিদা সুলতানা, ব্যবসায়ী ও উপজেলা চেয়ারম্যান রুহুল আমিন বাবুল সহ কাস্টমস ও স্থলবন্দরের কর্মকর্তা বৈঠক করে বিষয়টি পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে বিষয়টি সরকারের দৃষ্টি আকর্ষণ করা হয়। পরবর্তীতে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে বিষয়টি ভারতীয় কতৃপক্ষকে জানানো হয়। অবশেষে দীর্ঘ ১ মাস ৮ দিন পর নিজ দেশে ফেরত গেল।
বুড়িমারী স্থলবন্দর কাস্টমস সূত্র জানায়, পাবনার হাজী বীজ ভান্ডার, নিউ হাজী বীজ ভান্ডার, নীলফামারীর বিশ্বাস এন্ড ব্রাদার্স, রায় সীড কোম্পানী, চাপাইনবাবগঞ্জের আঁখি সীড ভান্ডার, মীম বীজ ভান্ডার, ঢাকার জামাল সীড কোম্পানী, জেএফ এগ্রো লিমিটেড, কোয়ালিটি সীড কোং, রাসেল সীড কোং, বিকাশ এন্টারপ্রাইজ সহ বিভিন্ন আমদানি কারক প্রতিষ্ঠান এসব বীজ আমদানি করে।
বুড়িমারী স্থলবন্দর কাস্টমস সহকারী কমিশনার (এসি) সোমেন কুমার চাকমা বলেন, অবশেষে ৩৮ দিন পর ৬১ ট্রাক ও চালককে ফেরত নেওয়ায় ভারতীয় সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে ধন্যবাদ। ভবিষ্যতে যেন ব্যবসায়ীদের এমন কোনো পরিস্থিতিতে না পড়ে।
বুড়িমারী স্থলবন্দর কর্তৃপক্ষের উপ-পরিচালক (ডিডি) মাহফুজুল ইসলাম বলেন, ভারতীয় ট্রাক ও চালকদের ফেরত পাঠানো হয়েছে। গত ৪ এপ্রিল পাটবীজ নিয়ে বুড়িমারীতে প্রবেশ করেছিল এসব ট্রাক ও চালক। তারা পণ্য খালাস করে ফেরত গেলে ভারতী বিএসএফ সীমান্তে আটকে দেয়। পড়ে এসব গাড়ী ও চালকদের আমাদের শেডে লকডাউন করে রাখা হয়।
পাটগ্রাম উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও বুড়িমারী স্থলবন্দর সিএন্ডএফ এজেন্ট অ্যাসোসিশনের সভাপতি রুহুল আমিন বাবুল বলেন, ভারতীয় কতৃপক্ষ ট্রাক ও চালকদের ফেরত নেওয়ায় ধন্যবাদ। তবে পরবর্তীতে যেন এই অস্বাভাবিক পরিস্থিতি তৈরি না হয়। এজন্য ভারতীয় কতৃপক্ষকে উদ্যোগী হতে হবে।