ঢাকায় করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত যুবক লালমনিরহাটে পালিয়ে এসেছে

প্রকাশিত: ১০:১৩ অপরাহ্ণ, মে ১৪, ২০২০

মোঃ মাসুদ ররানা রাশেদ, লালমনিরহাট: ঢাকায় করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত যুবক পালিয়ে এসে লালমনিরহাট জেলার পাটগ্রাম উপজেলার সীমান্তবর্তী গ্রাম ধবলসুতি গ্রামে এসেছে। পুলিশ বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৮টায় তাকে আটক করে পাটগ্রাম উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আইসোলেশন ক্যাম্পে রেখেছে। এ ঘটনায় চাঞ্চলের সৃষ্টি হয়েছে। চিকিৎসগণ ধারণা করছে তার দ্বারা অর্ধশতাধিক ব্যক্তি করোনা সংক্রামিত হয়ে থাকতে পারে। তাদের সন্ধান চলছে।
জানা গেছে, ঢাকার নারায়ণগঞ্জের গার্মেন্টস কর্মী রিয়াজুল ইসলাম (৩৫) জ্বর, সর্দি ও গলাব্যথা অনুভব করলে ঢাকায় করোনা ভাইরাস পরীক্ষা করান। বুধবার তার করোনা পজিটিভ রিপোর্ট আসে। রিপোর্ট হাতে পেয়ে সে ঢাকার ঠিকানায় ফিরে যায়নি। সে পালিয়ে আসে গ্রামের বাড়ী লালমনিরহাট জেলার পাটগ্রাম উপজেলার ধবলসুতি গ্রামে। সে লালমনিরহাট জেলার পাটগ্রাম উপজেলার পাটগ্রাম ইউনিয়নের ধবলসুতি গ্রামের আবতাব উদ্দিনের ছেলে।
পাটগ্রাম থানা পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত যুবক তার রিপপোর্ট পেয়ে ঢাকা হতে ১৪জন মিলে একটি মাইক্রোবাস ভাড়া করে রংপুরে আসে। সকলে রংপুরে নেমে যায়। পরে সে রংপুর হতে ভেঙ্গে ভেঙ্গে অটোরিক্সা যোগে পাটগ্রাম উপজেলার তার গ্রামের বাড়ীতে আসে। ঢাকায় করোনা পজিটিভ রিপোর্টের পরে তাকে আইসোলেশনে নিতে গিয়ে দেখে সে পালিয়েছে। পরে ঢাকা হতে পাটগ্রাম পুলিশ ও লালমনিরহাট সিভিল সার্জনকে বিষয়টি অবগত করা হয়। তাকে সনাক্ত করে রাতে পাটগ্রাম উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আইসোলেশনে রাখা হয়েছে। এদিকে তার দেয়া তথ্যমতে রংপুরে নেমে যাওয়া মাইক্রোবাসের চালক, সহযাত্রী ও ভেঙ্গে ভেঙ্গে আসা অটোরিক্সার যাত্রী ও চালকদের সন্ধান করা হচ্ছে। কারণ সংক্রামণ রোধে তাদের নমূনা সংগ্রহ করে পরীক্ষা করা হবে। সিভিল সার্জন ডাঃ নির্মলেন্দু রায় বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। যুবকের এই আচরণকে অপরাধ ও কান্ডহীন বলে অবহিত করেছে।