লালমনিরহাটে মটর শ্রমিকদের সংবাদ সম্মেলন

প্রকাশিত: ৮:৩৫ অপরাহ্ণ, মে ২১, ২০২০

মোঃ মাসুদ রানা রাশেদ, লালমনিরহাট: করোনা সংক্রমণ রোধে কর্মহীন শ্রমিকদের সহায়তা না করার অভিযোগ এনে মটর মালিক সমিতির বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন করেছে জেলা বাস, মিনিবাস, কোচ ও মাইক্রোবাস
শ্রমিক ইউনিয়ন। আজ বুধবার ২০ মে সকালে শ্রমিক ইউনিয়ন অফিসে এ সংবাদ সম্মেলন করেন
সাধারন শ্রমিকরা। পরে সংবাদ সম্মেলনের প্রেস বিজ্ঞপ্তি জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপারসহ
বিভিন্ন দপ্তরে প্রেরণ করেন শ্রমিকরা।
সংবাদ সম্মেলনে শ্রমিকরা বলেন, জেলায় বাস, মিনিবাস, কোচ ও মাইক্রোবাস শ্রমিক
সংগঠনের প্রায় ২হাজার সদস্য রয়েছে। এসব শ্রমিকরা করোনা পরিস্থিতির কারনে পরিবহন বন্ধ থাকায় কর্মহীন হয়ে মানবেতন জীবন যাপন করছেন। গাড়ির চাকা না ঘুরলে তাদের পেটে ভাত
জোটেনা। তাদের রক্ত ঘামের পয়সায় মালিকরা আঙ্গুল ফুলে কলাগাছ বনে গেছে। কিন্তু করোনা
সংক্রমণ রোধে দীর্ঘ সময় অঘোষিত লক ডাউনের কারনে শ্রমিকরা না খেয়ে থাকলেও কোন খোঁজ নিচ্ছেন না মালিকরা। শ্রমিকরা অভিযোগ করে বলেন, এ দুর্যোগময় পরিস্থিতিতে ১শত ২০জন শ্রমিককে লোক দেখানো ত্রাণ সামগ্রী দিয়ে গা ঢাকা দিয়েছেন মালিক সমিতির নেতৃবৃন্দ। কোন সহযোগিতা করছে না মটর মালিক সমিতির নেতারা। এ সময় জেলা বাস, মিনিবাস, কোচ ও মাইক্রোবাস শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক বুলবুল আহমেদ বলেন, শ্রমিক ইউনিয়নের নিজম্ব তহবিল থেকে অসুস্থ্য শ্রমিকদের চিকিৎসা ও দুর্ঘটনা কবলিত শ্রমিকদের অর্থ সহায়তা, মৃত শ্রমিক ও তাদের পরিবারের সহযোগিতা করে
আসছে। বর্তমানে এ করোনা পরিস্থতিতে শ্রমিক ইউনিয়নের তহবিলে যে অর্থ ছিল তা দিয়ে
৭শত অসহায় শ্রমিককে ত্রাণ সহায়তা করা হয়েছে। গণ পরিবহন শ্রমিকদের সকল দায় মালিকদের উপরে বর্তায়। কিন্তু মটর মালিক সমিতির নেতৃবৃন্দ এ দুর্যোগের সময় শ্রমিকদের পাশে না
দাড়িয়ে বিএনপি- জামাতের কতিপয় শ্রমিককে শ্রমিক ইউনিয়নের বিরুদ্ধে আন্দোলনের নামে
উষ্কানি দিয়ে নৈরাজ্য সৃষ্টির চেষ্টা করছে। মালিক সমিতির নামে আদায়কৃত কোটি কোটি টাকা আড়াল করতেই এ ভিন্ন পন্থা অবলম্বন করছে সমিতির নেতৃবৃন্দ। উল্লেখ্য গত ১৫ মে কর্মহীন ঘরে থাকা শ্রমিকদের সহায়তা না করার অভিযোগে লালমনিরহাট মোটর মালিক সমিতির নেতৃবৃন্দের পদত্যাগের দাবীতে বিক্ষোভ করেছে সাধারণ শ্রমিকরা।
শ্রমিক ইউনিয়নের ৫শতাধিক শ্রমিক ঢাকা-বুড়িমারী মহাসড়কে বিক্ষোভ প্রদর্শন করে।
বিক্ষুব্ধ শ্রমিকরা মালিক সমিতির নেতৃবৃন্দের পদত্যাগ দাবী করে দ্রুত নির্বাচনের মাধ্যমে
নতুন কমিটি করার দাবী জানায়।