কুড়িগ্রাম এক্সপ্রেস ট্রেনের ইঞ্জিনে আগুন

প্রকাশিত: ৩:১৪ অপরাহ্ণ, জুন ১৪, ২০২০
ছবি: প্রতীকী ছবি

অনলাইন ডেস্ক: জয়পুরহাটের আক্কেলপুর রেল স্টেশন এলাকায় ঢাকাগামী আন্তনগর কুড়িগ্রাম এক্সপ্রেস ট্রেনের ইঞ্জিনের ট্রাকসন মোটরে আগুন লাগার ঘটনা ঘটেছে। এলাকাবাসীর সতর্কতায় চালক দ্রুত ট্রেনটিকে নিয়ন্ত্রণে এনে আক্কেলপুর ষ্টেশনে দাঁড়িয়ে যায়। এতে বড়ধরনের দুর্ঘটনা থেকে রক্ষা পাওয়া গেছে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা।

আজ রবিবার বেলা ১১ টা ১৩ মিনিটে ট্রেনটি স্টেশনে দাঁড়ায়। এর আগে কোনো এক সময় ওই ইঞ্জিনের ট্রাকসন মোটরে আগুন লাগে।

কুড়িগ্রাম থেকে ছেড়ে আসা ঢাকাগামী ‘কুড়িগ্রাম এক্সপ্রেস’ ট্রেনটি জয়পুরহাট জেলা সদরের স্টেশনে যাত্রাবিরতির জন্য দাঁড়ায়। সাধারণত ওই ট্রেনটি আক্কেলপুর রেল স্টেশনে যাত্রাবিরতি না থাকায় দ্রুতগতীতে আক্কেলপুর অতিক্রম করে থাকে। রবিবার বেলা ১১টা ১৩ মিনিটের দিকে ট্রেনটি এই স্টেশন অতিক্রম করার কথা ছিল। ট্রেনটি পৌর সদরের রেলগেট অতিক্রম করার সময় স্থানীয় লোকজন ট্রেনের ইঞ্জিনে আগুন আর ধোঁয়া দেখতে পেয়ে চিৎকার করে চালকের দৃষ্টি আকর্ষণ করে। এরপর চালক সেটি দেখতে পেয়ে দ্রুত ট্রেনটিকে নিয়ন্ত্রনে এনে স্টেশনে দাঁড়িয়ে যায়।

স্থানীয় বাসিন্দা আনোয়ার হোসেন বলেন, ট্রেনটি রেলগেট অতিক্রম করার সময় দেখি ইঞ্জিনে আগুন জ্বলছে। তখন স্থানীয় লোকজন চিৎকার করে চলন্ত ট্রেনের চালকের দৃষ্টি আকর্ষণ করে। বিষয়টি চালক বুঝতে পেরে ট্রেন দাঁড় করায়।

ট্রেন চালক আব্দুর রশিদ সরকার বলেন, ট্রেনটি আক্কেলপুর রেল স্টেশন অতিক্রম করার পূর্বে আউটার সিগন্যালের কাছে পৌছার সময় দেখি ইঞ্জিনের নিচ থেকে ধোঁয়া বের হচ্ছে। তখন দ্রুত ট্রেনটিকে স্টেশনে দাঁড় করাই এবং অগ্নি নির্বাপক যন্ত্র দিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রনে আনি। ইঞ্জিনের ট্রাকসন মোটরে আগুন লেগেছিল। এটা কী কারণে হয়েছে তা এই মুহূর্তে বলা যাচ্ছে না।

আক্কেলপুর ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের লিডার লোকমান হোসেন বলেন, খবর পেয়ে দ্রুতগতীতে স্টেশনে আমরা পৌঁছাই। তবে আমরা আসার পূর্বেই ট্রেনের চালকসহ অপারেটররা ইঞ্জিনের ট্রাকসন মোটরের আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন। এতে ট্রেনের যাত্রী বা ট্রেনের অন্য কোনো অংশের কোনো ক্ষয়ক্ষতি হয়নি।

আক্কেলপুর রেল স্টেশনের ইনচার্জ খাদিজা খাতুন বলেন, কুড়িগ্রাম এক্সপ্রেস-৭৯৮ নম্বর ট্রেনটির এই স্টেশনে যাত্রাবিরতি নেই। ইঞ্জিনের সমস্যার কারণে ট্রেনটি বেলা ১১ টা ১৩ মিনিটে স্টেশনে দাঁড়ায়। দুপুর একটা পর্যন্ত ট্রেনটি আক্কেলপুর রেল স্টেশনেই দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা যায়। তবে ওই স্টেশন ইনচার্জ আরও জানান, পারবর্তীপুর থেকে অন্য একটি ইঞ্জিন আসার পরে ট্রেনটি ঢাকার উদ্দেশ্যে ছেড়ে যাবে।