সুজিত বিশ্বাস‌ এর কবিতা “ফিরে এসো”

প্রকাশিত: ১০:৩৭ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ২, ২০২২

ফিরে এসো
সুজিত বিশ্বাস

যদি কোনদিন ইচ্ছে হয় ফিরে এসো
দেখবে আগের মতই সব পরিপাটি-
ড্রয়িংরুমে ঝুলানো ভিন্চির ছবি
তার নীচে টবে রাখা বনসাই ক্যাকটাস
দেয়াল জুড়ে তোমার প্রিয় টেরাকোটার নঁকশা
শোফাসেটে পড়েনিকো এতটুকু ধুলো
তোমার সাজানো শোকেসে–
কাপ,পিরিচ,সিরামিকের তৈজসপত্র
আগের মতই স্থির হয়ে আছে।

যদি কোনদিন ইচ্ছে জাগে আবার ফিরে এসো
দেখবে কোনকিছু হয়নি এতটুকু মলিন
শিমুল তুলোর বালিশ,মার্কেটের বাছাই করা বেডশিট
তোমার প্রিয় কম্বল আর গুটিকয়েক নকশীকাঁথা
সময়ের অভাবে ফেলে যাওয়া কিছু টাঙ্গাইলের শাড়ি
অথবা রংচটা কিছু সেকেলে ধরনের গহনা
অনেক কস্টে-কেনা সেই তোমার কাশ্মিরী শাল
আগের মতই আছে স্থির হয়ে।

যদি কোনদিন ইচ্ছে জাগে আবার ফিরে এসো
দেখবে জোছনার প্লাবন বয় আমাদের ছাদে
ঝিরিঝিরি হাওয়ায় কাপে ডালিমের ডাল
পেয়ারার পাতা কালো প্রগাঢ় ছত্রাকে
একটি ডাল আর গুটিকয়েক পাতা নিয়ে-
আজো বেঁচে আছে বকুলের চারা
অপুষ্ট কামরাঙা ঝরে পড়ে শিমুলের তুলোর মত।

যদি কোনদিন ইচ্ছে হয় ফিরে এসো
দেখবে আমাদের বাচ্চারা হয়েছে বড়
তারা আর কাঁদেনা আগের মত
কোন অভিমান আর নেই বুঝি অবশিষ্ট
স্কুল থেকে স্কুলে,কোচিং থেকে কচিং-এ
তারা ছুটে চলছে অবিরাম-
ইন্সটাগ্রাম,টুইটার আর ফেসবুকে তাদের অগনিত বন্ধু
শপিং মলের এস্কেলেটর ধরে তারা উঠে যাচ্ছে উপরে
তাদের এ সময় বড় বিচিত্র গতিশীল।

যদি কোনদিন মনে হয়, ফিরে এসো
দেখবে সময় আমাকে করেনি ক্ষমা
অনিদ্রা, রক্তচাপ কিংবা ডায়াবেটিস –
কুরে কুরে ধ্বংস করেছে শরীরের সব অরগান
চোখে উঠেছে উচ্চ লেন্সের ক্ষীনদৃষ্টি চশমা-
নিকট কে দেখিনা-দুরে করি দৃষ্টিনিক্ষেপ
তবু সেই চোখে আছে অপার আবেগ
অহর্নিশি কী যেন খূঁজে ফেরে পৃথিবীর বুকে।

জীবন কি মেনে চলে “অনিশ্চয়তার থিওরী?”
জীবন কি বয়ে চলে গনিতের সূত্রে?
জীবন যেন এক “থিওরী অব এভরিথিং
যদি ওপারের রং হয় ফিকে কোন এক কালে
যদি গহীনে জেগে ওঠে কোন সুখ-স্মৃতি
তবে ফিরে এসো,ফিরে এসো, শেষ পলকের আগে।।

রেলওয়ে রেস্ট হাউজ,ঢাকা
০২/০১/২০২২